শিরোনাম :
চন্দনাইশকে ১০-০ গোলে বিধ্বস্ত করলো আনোয়ারা Worldwide virtual Webinar-2 on “Hybrid Learning with Kahoot! ” Organized by “Global Educators’ Community” & Hosted by Nazmul Haque, Bangladesh ইউপি মেম্বার পদে পারভেজ উদ্দিন রাসেল নির্বাচন করতে ইচ্ছুক ২৩ জুন আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠার দিন: মোহাম্মদ হাসান চট্টগ্রামে “বিশ্ব হাইড্রোগ্রাফি দিবস-২০২১’এর সেমিনার অনুষ্ঠিত হযরত শাহ মোহছেন আউলিয়া (রহঃ)’র পবিত্র ওরশ মোবারক আজ অবহেলিত মানুষের পাশে দাঁড়ানো শিখিয়েছে নিষ্ঠা ফাউন্ডেশন : ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ টিভি ক্যামেরা জার্নালিস্ট এসোসিয়েশনের ফল উৎসব’ কর্ণফুলীর মইজ্জারটেকে সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত ১৫ আহত ২০ চান্দগাঁও পবিত্র জশনে জুলুছে ঈদে-এ মিলাদুন্নবী (দ.) উদযাপন পরিষদের কাউন্সিল অধিবেশন সম্পন্ন

রাজধানীতে হাসপাতাল কর্মচারীদের প্রহারে মৃত্যু হয়েছে এএসপির

মহসিন আরফাত, স্টাফ রিপোর্টারঃ গতকাল সোমবার সকালে হাসপাতালেভর্তি হওয়ার কিছু সময় পর তার মৃত্যু হই। পরিবারে দাবি রাজধানীর আদাবর মাইন্ড এইড হাসপাতালে ভর্তির পরে হাসপাতালের কর্মকর্তা কর্মচারীরা তাকে পিটিয়ে হত্যা করে।

এ ঘটনায় হাসপাতালের ব্যাবস্থাপকসহ ৬ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। হাসপাতালের দাবি উশৃংখল আচরণ করায় তারা পুলিশ কর্মকর্তাকে শান্ত করার চেষ্টা করছিলেন। আনিসুল করিমের বাড়ি গাজীপুরের কাপাসিয়ায়।
তিনি ৩১তম বিসিএসে পুলিশ কর্মকর্তা হিসেবে নিয়োগ প্রাপ্ত হন। সর্বশেষ বরিশাল মহানগরীতে কর্মরত ছিলেন আনিসুল করিম। তিনি এক সন্তানের জনক। আনিসুল করিমের ভাই রেজাউল করিম জানান তার ভাই পারিবারিক ঝামেলার কারণে মানসিকভাবে সমস্যায় ছিলেন। সোমবার বেলা সাড়ে এগারোটায় তারা তাঁকে নিয়ে “মাইন্ড এইড” হাসপাতালে যান। কাউন্টারে যখন ভর্তি ফরম পূরন করাকালীন হাসপাতালের কয়েকজন কর্মচারী তাকে দু’তলায় নিয়ে যান এর কিছুক্ষণ পর তাদের জানানো হয় আনিসুল অজ্ঞান হয়ে পড়ে আছেন। এরপর দ্রুত তারা হৃদরোগ ইন্সটিটিউটে নিয়ে যাওয়ার পর চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।

প্রকাশিত সিসিটিভি ফুটেজে

এ ঘটনায় হাসপাতালের সিসিটিভি ফুটেজ সংগ্রহ করে পুলিশ সেখানে দেখা যায় বেলা ১১.৫৫ মিনিটে পুলিশ কর্মকর্তা আনিসুল করিমকে টানাহেঁচড়া করে একটি কক্ষে ঢুকানো হয়। তাকে হাসপাতালের ছয়জন কর্মকর্তা কর্মচারীর মিলে মাটিতে চেপে ধরেন পরে নীল পোশাকধারী আরো দু’জন তার পা চেপে ধরেন এসময় মাথার পাশে থাকা দু’জন তাকে কনুই দিয়ে আঘাত করতে থাকে। হাসপাতালের ব্যাবস্থাপক আরিফ মাহমুদ তখন পাশেই দাড়িয়ে ছিলেন একটি নীল কাপড়ের টুকরো দিয়ে আনিসুলের হাত পেছন থেকে বাঁধা হয়। চার মিনিট পর আনিসুল দেহ যখন নিস্তেজ হয় তখন একজন কর্মচারী তার মুখে পানি ছেটান তাতে আনিসুল করিম নড়াচড়া করছিলেননা। এরপর একজন কর্মচারী ফ্লোরের মেজে পরিষ্কার করেন। ৭ মিনিট পর সেখানে সাদা এপ্রন পরিহিত একজন নারী আসেন ১১ মিনিটের মাথায় কক্ষের দরজা লাগিয়ে দেওয়া হয়। ১৩ মিনিটের মাথায় তার বুকে পাম্প করেন সাদা এপ্রন পরিহিত নারী। তার ভাই রেজাউল করিম জানান! আনিসুল করিমের রক্তচাপজনিত রোগ ছিলো কিছুটা হৃদরোগ ছিলো কিন্তু এ দুটির কোনটিই প্রকট ছিলোনা হাসপাতালের কর্মকর্তা কর্মচারীদের পিটুনিতে তার মৃত্যু হয়েছে।
ডিএমপির অতিরিক্ত কমিশনার মৃত্যুঞ্জয় দে সজল জানিয়েছেন সহকারী কমিশনার আনিসুল করিমকে চিকিৎসার নামে কয়েকজন এলোপাতাড়ি মারধোর করেছে বলে প্রমান পাওয়া গেছে। ডিএমপির তেজগাঁও জোনের উপ-কমিশনার হারুনুর রশীদ জানিয়েছেন প্রশিক্ষিত নই এমন কিছু ব্যাক্তি তাঁকে চিকিৎসার নামে মারধোর করে এতে তিনি প্রান হারান। পুলিশ খবর পেয়ে দুপুর দেড়টার দিকে সেখানে গিয়ে লাশ উদ্ধার করেন এবং ৮জনকে থানায় এনে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

(Visited 33 times, 1 visits today)