শিরোনাম :
চৌদ্দগ্রামের কাশিনগরে অভিভাবক সমাবেশ ও পুরস্কার বিতরণ – দেশ সেরা অনলাইন পারফর্মার হলেন কিশোরগঞ্জ এর শিক্ষক নাজমুল হক বটন কান্তি বড়ুয়া বাবেশিকফো এর চট্টগ্রাম জেলা কমিটির সহ-সভাপতি নির্বাচিত বাবেশিকফো চট্টগ্রাম জেলা কমিটির যুগ্ম-সাধারণ, রাঙ্গুনিয়ার ইকবাল হোসেন এনামুল হক বাবেশিকফো এর চট্টগ্রাম জেলা কমিটির সিনিয়র সহ-সভাপতি নির্বাচিত বাবেশিকফো এর চট্টগ্রাম জেলা কমিটি ঘোষনা, সভাপতি শরীফুল ইসলাম সম্পাদক মোখলেছুর রহমান জেদ্দায় লোহাগাড়া প্রবাসী সমিতি কর্তৃক ডঃ আবু রেজা মুহাম্মদ নেজামুদ্দিন নদভী (এমপি) সংবর্ধিত ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন এর প্রতি খোলা চিঠি ফটিকছড়ির হারুয়ালছড়ি দরবারে জশনে জুলুছের প্রস্তুতি ৬ষ্ঠ শ্রেণি থেকে ৯ম শ্রেণির বার্ষিক ও ১০ম শ্রেণির নির্বাচনী পরীক্ষা সংক্রান্ত মাউশির পরিপত্র জারি ,পরীক্ষা হবে তিন বিষয়

লকডডাউনে বাড়ছে মানসিক অসুস্থতা এবং অস্থিরতা : মহিউদ্দিন ওসমানী

বিশেষ নিবন্ধ : এক ভাইরাসের দাপটে ঘরবন্দি বিশ্বের কয়েকশ কোটি মানুষ,সভ্যতার চাকাও স্থবির প্রায়। বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে স্থবির হয়ে পড়েছে গোটা বিশ্ব।দেশে দেশে চলছে লকডাউন। গনপরিবহণ বন্ধ।আকাশপথও বন্ধ। এ অবস্থায় ব্যবসা বাণিজ্যে ধস নেমেছে। ভয়াবহ সঙ্কটের মূখে পড়েছে বিশ্ব অর্থনীতির চাকা সচল হতে কত সময় লাগবে তা এখনো নির্দিষ্ট করে বলা যাচ্ছে না। ধনী দরিদ্র, নিম্নবিত্ত, মধ্যবিত্তসহ সকলের আয় একেবারেই শূন্যের কোটায়। ফলে খরচের হাতও কমে গেছে।

দেশে দেশে মৃত্যের মিছিল দীর্ঘ হচ্ছে, এই মুহুতে মৃত্যুর সংখ্যা ১০ লক্ষের কোটার কাছাকাছি। ভয়, আতংক, ক্ষুধা, ছেলেমেয়েদের ভবিষৎ সব মিলে মানুষের মানসিক স্বাস্থ্যে বিরুপ প্রভাব পড়েছে। এখন ঘরেবন্দি থাকাটা তাদের কাছে জেলে বন্দি থাকার মতোই কঠিন মনে হচ্ছে। কেউ ভুগছেন একাকীত্বে, কেউ আছেন আতঙ্কে আবার ঘরের অনেক কর্তা আছেন সংসার চালানোর ভয়ে মানসিক অস্থিরতায়। করোনাভাইরাস মহামারীর কবলে একদিকে যেমন ক্ষতিগ্রস্ত স্বাস্থ্য ও অর্থনীতি, তেমনই গভীরভাবে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের সাধারণ জীবনযাত্রা। এই সবেরই মিশ্র প্রভাব পড়েছে মানসিক স্বাস্থ্যে।

লকডাউনের অনিশ্চয়তায় বাড়ছে মানসিক অসুস্থতা। যদিও নতুন এক গবেষণায় জানা গেছে লকডাউন কারণে করোনাভাইরাস সংক্রমণ ৪৫ শতাংশ কমেছে। তাতোও দুর হয়নি ঘরবন্দি মানুষের মনের ওপর নেতিবাচক প্রভাব। এখন দেখা যাচ্ছে লকডাউনের কারণে পারিবারিক অশান্তি বাড়ছে ঘরে ঘরে। স্বামী স্ত্রীর মাঝে ঝগড়া বিবাদের খবরও পাওয়া যাচ্ছে, এমন কি খুনখারাবিও হচ্ছে, কোথায় কোথায়ও আত্মহত্যার প্রবনতাও বাড়ছে।

বিচ্ছিন্নতার কারণে নেতিবাচক প্রভাব পড়ছে শিশু, যৌবক এবং বয়স্কদের মনোজগতেও। প্রবাসে বা বাসায় প্রিয়জন থেকে যারা দুরে রয়েছে তাদের মধ্যে মারাত্মক মানসিক প্রতিক্রয়া সৃষ্টি হচ্ছে, প্রবাসেও এই পর্যন্ত মানসিক অশান্তির কারণে স্ট্রোক করে অনেক লোকের মৃত্যের খবর পাওয়া যাচ্ছে।সব মিলিয়ে মানসিক স্বাস্থ্যে সৃষ্টি হচ্ছে এক জরুরী অবস্থা। মানসিক অস্থিরতায় থাকা মানুষজন জানে না তারা কি করবে? এই অবস্থার পরিবর্তন কবে হবে এই চিন্তায় আরো অস্থিরতা বাড়ছে। তাই অনেকেই বাসার চারদেওয়ালের মধ্যে দিনের পর দিন বন্দিদশার কারণেই অনেক সময়ই পাগলের মত আচরণ করছেন তারা। অনেকে বাবা মা, বান্ধবদের সঙ্গেও ভিডিও চ্যাটে মেজাজ হারা হচ্ছেন।

অনেকে সামাজিক দুরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে বাতাসে ভাইরাস থাকতে পারে ভেবে বাইরে যেতেও আতঙ্কে ভুগছেন। এ এক অন্যরকম সময়। দূর কল্পনায় ও আমরা এমন পরিস্থিতির কথা চিন্তা করতে পারিনি। গ্রাম থেকে শহর, দেশ থেকে দেশান্তর সব বিচ্ছিন্ন। মানুষ ঘরবন্দি, পৃথিবী স্তব্ধ।

এইভাবে আর কত দিন? কখন মিলবে এই দশা থেকে মুক্তি,, পৃথিবীর একজন লোকও অবস্থার উৎতরণের পথ দেখাতে বৃর্থ। সারা পৃথিবী সমস্ত শক্তি এখন এক হয়ে যুদ্ধ করছেন এক অদেখা ভাইরাসের বিরোদ্ধে, যার নাম নোভেল করোনা। কিন্তু কেহ সফল হতে পারছেন না। পৃথিবীর সবচেয়ে পরাশক্তিধরেরাই এখন কাবু যাচ্ছে এই শক্তির কাছে। এই ভাইরাস একটি অনুজীব, অর্থ্যাৎ এইভারাসের জীবন আছে, এটাকে সৃষ্টি করা হয়েছে, তাই আমাদের সকলকে অদেখা একটি সৃষ্টির এত শক্তি, যিনি এটাকে সৃষ্টি করেছেন তার কত শক্তি সেটা অনুধাবন করেই তার কাছে সবাইকে সাহায্য চাইতে হবে। তা হলেই আমরা এই মানসিক অসুস্থতার থেকে মুক্ত হতে পারবো।

(Visited 28 times, 1 visits today)