ইসলামিক ফ্রন্ট বাংলাদেশ এর ৩ নেতার স্মরণ সভা অনুষ্ঠিত

আল্লামা আনোয়ারুল ইসলাম খাঁন,আ মা ম মুবিন ও নুরুল ইসলাম হুলাইনী সুন্নীয়তের ৩ পথিকৃৎ

– আল্লামা জুুুুবাইর

যৌথ প্রতিবেদন (এইচ এএম নাছির উদ্দীন ও মুহাম্মদ কাউছার): ইসলামিক ফ্রন্ট বাংলাদেশ চট্টগ্রাম জেলার উদ্যোগে আয়োজিত রবিবার (১৪ মার্চ, ২০২১) বিকেল ৩ টায় চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবস্থ বঙ্গবন্ধু হলে ইসলামিক ফ্রন্ট বাংলাদেশ এর সদ্য প্রয়াত ৩ নেতার স্মরণসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে ইসলামিক ফ্রন্ট বাংলাদেশ এর কেন্দ্রীয় মহাসচিব শায়খুল ইসলাম জননেতা অধ্যক্ষ আল্লামা জয়নুল আবেদীন জুবাইর বলেছেন, যে সকল মহাপুরুষরা তাঁদের বর্ণাঢ্য কর্মযজ্ঞ দিয়ে দেশের ইতিহাস-ঐতিহ্যকে সমৃদ্ধ করেছে, তন্মধ্যে সদ্য প্রয়াত অধ্যক্ষ আল্লামা কাজী আনোয়ারুল ইসলাম খাঁন, অধ্যাপক আ মা ম মুবিন ও কবি কে এম নুরুল ইসলাম হুলাইনী তাঁদের অন্যতম হিসেবে নিজেদের প্রতিষ্ঠা করতে সক্ষম হয়েছেন।

আল্লামা জুবাইর বলেন, তাঁরা জাতীয় জীবনে একটি সুস্থ সমাজ বিনির্মাণে অসাধারণ অবদান রেখেছেন। ইসলামের মূলধারা সুন্নীয়তের রাজনৈতিক জাগরণ সৃষ্টিতে এদের অনবদ্য ভূমিকা কোনভাবেই বিস্মৃত হবার নয়।

তিনি বলেন, আল্লামা আনোয়ার ইসলাম খান,আ মা ম মুবিন ও নুরুল ইসলাম হুলাইনী ছিলেন সুন্নীয়তের মহান পথিকৃৎ। দেশের প্রচলিত রাজনীতির গুনগত পরিবর্তন সাধন পূর্বক জাতীয় জীবনে সুস্থধারার রাজনীতির প্রবর্তনে এরা আমৃত্যু নিরবচ্ছিন্ন কাজ আঞ্জাম দিয়ে গেছেন। সর্বপ্রকার অন্যায়, অসংগতি, অনৈতিক হাতছানিকে পদদলিত করে সত্য-ন্যায়ের সংগ্রামে এরা ছিলেন সদা অবিচল-আপোষহীন।

তিনি আরো বলেন, এঁরা আমৃত্যু মহান মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষীয় শক্তি হিসেবে দেশের স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্বের অতন্দ্র প্রহরীর দায়িত্ব পালন করেন। জাতীয় জীবনে এসব কর্মবীরদের শুন্যস্থান কখনও পৃরণ হবার নয়।

তিনি আরো বলেন, এসব ক্ষণজন্মা ব্যক্তিত্বদের বর্ণাঢ্য কর্মযজ্ঞ প্রজন্মকে উদ্দীপ্ত করবে, সঠিক পথের দিশা পাবে মানুষ। এরা ছিলেন সত্যানুসন্ধানীদের আস্থা-বিশ্বাসের অন্যতম ঠিকানা। এরা কখনও কালগর্ভে হারিয়ে যাবে না।

আল্লামা জুবাইর বলেন, এদের পদাংক অনুসরণ করা হলে জাতীয় জীবনে একটি সুস্থ, সুন্দর, নিরুপদ্রব, স্থিতিশীল ও মানবিক মূল্যবোধের সমাজ প্রতিষ্ঠা করা সম্ভব।

চট্টগ্রাম মহানগর ইসলামিক ফ্রন্ট বাংলাদেশ এর সভাপতি আলহাজ্ব এইচ এম মুজিবুল হক শুক্কুরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত স্মরণ সভায় উদ্বোধক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইসলামিক ফ্রন্ট বাংলাদেশ এর কেন্দ্রীয় ভাইস চেয়ারম্যান পীযে কামেল হযরতুলহাজ্ব আল্লামা ছৈয়দ নাছেরুল হক চিশতী।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইসলামিক ফ্রন্ট বাংলাদেশ এর কেন্দ্রীয় ভাইস চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ আল্লামা এস এম ফরিদ উদ্দীন, মাওলানা কাজী জসিম উদ্দীন, সিনিয়র যুগ্ন মহাসচিব এম সোলায়মান ফরিদ, শায়খুল হাদিস আল্লামা এনামুল হক সিকদার, আলহাজ্ব এম সিরাজ উদ্দীন তৈয়বী, কারী মাওলানা আবু তৈয়ব, আলহাজ্ব এম এ সবুর, অধ্যক্ষ মাওলানা ছৈয়দ জসিম উদ্দীন তৈয়বী, অধ্যাপক ছৈয়দ হাফেজ আহমদ,আল্লামা সালেহ আহমদ আনসারী, মাওলানা জাকের আহমদ সিদ্দিকী, মাওলানা মোহাম্মদ মুসা, অধ্যক্ষ মাওলানা আবু ছালেহ, মুফতি হেলাল উদ্দীন আলকাদেরী, হাজী মোহাম্মদ আলম রাজু, অধ্যক্ষ মাওলানা নুরুল আমিন,স ম শহিদুল হক ফারুকী, মাওলানা ছৈয়দ রফিকুল ইসলাম তাহেরী, এম মহিউল আলম চৌধুরী, মাওলানা রফিকুল ইসলাম নেজামী, হাফেজ মাওলানা আবু তাহের, মাওলানা এম ওয়াহেদ মুরাদ, মাওলানা নাছির উদ্দীন আনোয়ারী, লায়ন মোহাম্মদ এমরান, মাওলানা এ এম মঈনউদ্দীন চোধুরী হালিম, মাওলানা মোজাম্মেল হোসাইন, ডাঃ হাসমত আলী তাহেরী, শহিদুল্লাহ সাদা, মাওলানা মহিউদ্দীন তাহেরী, মাওলানা মাসুদ করিম চৌধুরী, হারিস উদ্দীন দৌলতী, মাওলানা নুর মোহাম্মদ সিদ্দিকী, এডভোকেট মীর ফেরদৌস আলম সেলিম,পীরজাদা শামসুদ্দীন হাবিবী, মোহাম্মদ সাদেক, কাজী মুহাম্মদ আহসানুল আলম, এস এম আবু সাদেক সিটু, আহমদ রেজা, খ ম জামাল উদ্দীন, মুহাম্মদ ফরিদুল হক, হাফেজ মোহাম্মদ মনিরুদ্দীন, ইঞ্জিনিয়ার গিয়াস উদ্দীন জাহেদ, কাউসারুল ইসলাম সোহেল, ইঞ্জিনিয়ার মোহাম্মদ রাসেদুল ইসলাম রাসেল ও তাওহীদ মুরাদ সুমন প্রমূখ।

(Visited 19 times, 1 visits today)