শিরোনাম :
হালদায় মা মাছ ও জীব বৈচিত্র্যসহ ডলফিন রক্ষায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা আজকের বাংলাদেশ আর আগের বাংলাদেশ এক নয়: প্রধানমন্ত্রী স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশের তালিকায় বাংলাদেশ বিকেলে প্রধানমন্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন লোহাগাড়া উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতির মায়ের কবরে আমিনুল ইসলাম আমিনের শ্রদ্ধা চট্টগ্রামে ডিজিটাল শিক্ষক গড়ার বাতিঘর আখতার হোছাইন কুতুবীকে সম্মাননা স্মারক প্রদান বিডিআর হত্যাকান্ডের দিন সকালে কেন খালেদা জিয়া বাসা থেকে বেরিয়ে গেলেন প্রশ্ন তথ্যমন্ত্রী’র খেলাধুলা যুব সমাজকে মাদক থেকে দুরে রাখে: রেজাউল করিম মাষ্টার চট্টগ্রামে নবনির্মিত এসপি কার্যালয় উদ্বোধন করলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সিলেটে দুই বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে ১০ যাত্রী নিহত অর্ধশত আহত

সাঙ্গু নদীতে নিখোঁজ সেনা সদস্য মীরসরাইয়ের আসিফুলের লাশ উদ্ধার

মোহাম্মদ হাসান, সাব-এডিটরঃ চট্টগ্রামের আনোয়ারা উপজেলার তৈলারদ্বীপ এলাকায় সাঙ্গু নদীতে নিখোঁজ সেনা সদস্য আসিফ হোসাইন নিশানের (২১) লাশ ১৯ ঘন্টার চেষ্টায় পাওয়া গেছে।

আজ মঙ্গলবার বেলা ১১টা ৫৫ মিনিটে লাশটি উদ্ধার করেছেন ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের ডুবুরিরা। নিখোঁজ সেনা সদস্য আসিফুল চট্টগ্রামের মীরসরাই উপজেলার চুনিমিঝিরটেক গ্রামের ভেলু মালের বাড়ীর আনোয়ারুল ইসলামের একমাএ ছেলে। বর্তমানে পরিবারের সবাই হালিশহর এলাকায় থাকেন। সে বিএমএ ক্যাডেট হিসেবে এবারের প্রশিক্ষণে যোগ দিয়েছিলেন। বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর শীতকালীন মহড়ার অংশ হিসেবে আনোয়ারার শঙ্খ নদীর পাড়ে প্রশিক্ষণ নিতে আসে সেনাবাহিনীর একটি প্রশিক্ষণার্থী দল। সোমবার বিকেল ৫টার দিকে ঐ প্রশিক্ষাণার্থী দলের কয়েকজন সদস্য তৈলারদ্বীপ জেলেপাড়া এলাকার শঙ্খ নদীতে গোসল করতে নামলে প্রবল স্রোতে ভেসে মোহাম্মদ আসিফুল (২০) নামের এক সেনা সদস্য নিখোঁজ হন।

জানা গেছে, ডুবুরি রাজিব হোসেন মরদেহটি উদ্ধার করতে সক্ষম হন। এ সময় নদীপাড়ে অপেক্ষমাণ শত শত মানুষের মধ্যে শোকের ছায়া নেমে আসে।

ফায়ার সার্ভিসের উপ-সহকারী পরিচালক ফরিদ আহমদ সংবাদ মাধ্যমে জানান, গতকাল সোমবার বিকালে বন্ধুর সঙ্গে গোসল করতে নামেন বিএমএর ক্যাডেট আসিফ। এরপর তিনি নিখোঁজ হন। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল বিকাল থেকে উদ্ধার অভিযান চালায়। এর সঙ্গে যোগ দেন বাংলাদেশ নৌবাহিনী ও কোস্টগার্ডের টিমও। মঙ্গলবার আমাদের একজন ডুবুরি লাশটি খুঁজে পান। এরপর সেনাবাহিনীর কাছে হস্তান্তর করা হয়।

সেনা সদস্য নিখোঁজ হওয়ার পর তাঁর গ্রামের বাড়ীতে শোকের ছায়া নেমে আসে। গতকাল রাতে পরিবারের লোকজনকে নিখোঁজের খবর দেওয়া হলে সেনা সদস্যের মা-বাবা হতাশ হয়ে পড়ে। পরে গ্রামের বাড়ীতে খবর পৌছাঁলে পরিবারের সদস্যদের আহাজারি শুনে এলাকার লোকজনের কাছে নিখোঁজের খবর পৌঁছে যায়। নিখোঁজ সেনা সদস্যের মৃত্যুর বিষয়ে চুনিমিঝিরটেক ৭নং ওয়ার্ড ইউপি সদস্য রফিকুজ্জামান বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করেন। তিনি সেনা সদস্য আসিফুলের অকাল মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেন এবং শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান। পারিবারিক সূএে জানা যায়, চট্টগ্রাম থেকে মৃতদেহ গ্রামের বাড়ীতে পৌঁছালে এশার নামাজের পরে পারিবারিক গোরস্থানে মৃতদেহ দাফন করা হবে।

(Visited 376 times, 1 visits today)