শিরোনাম :
ওমর ফারুক খাঁন তৃতীয় বারের মত দাগনভঞার মেয়র নির্বাচিত নৌকার প্রার্থীর সমর্থনে অধ্যাপক ড. আবুল আলা মোহাম্মদ হোছামুদ্দিনের নেতৃত্বে স্বাশিপের গণসংযোগ নৌকার প্রার্থীর সমর্থনে অধ্যাপক ড. আবুল আলা মোহাম্মদ হোছামুদ্দিনের নেতৃত্বে স্বাশিপের গণসংযোগ, ষাট পৌরসভায় শান্তিপূর্ণ ভোট গ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে: ইসি সচিব একুশ সালের মধ্যে সকলের জন্য ইন্টারনেট নিশ্চিত করা হবে: পলক যদি মানুষ ভোট দিতে পারে“চট্টগ্রামে ভোট বিপ্লব ঘটবে -ড.শাহাদাৎ” দক্ষিণ হালিশহর ৩৯নম্বর ওয়ার্ডে ধানের শীষের গনসংযোগে মেয়র প্রার্থী ডাঃ শাহাদাৎ হোসেন আগামীর নগর পিতার নিকট প্রত্যাশা : সমৃদ্ধ এই বন্দর নগরীকে বাণিজ্যিক রাজধানী হিসাবে বাস্তবায়নে তিনি যথাযথ পদক্ষেপ নিবে জনগণের বাসস্থান নিশ্চিতে বিনাসুদে, শর্তবিহীন ঋণ সুবিধা দিন চসিক এর চকবাজার ও পার্শ্ববর্তী এলাকায় ওয়াহেদ মুরাদের গণসংযোগ করোনা সংকটে আবারও বাড়ল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছুটি

নৌবাহিনীকে সম্পূর্ণ ত্রিমাত্রিক বাহিনীতে রূপান্তরে সক্ষম হয়েছি: প্রধানমন্ত্রী

মোহাম্মদ হাসানঃ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আমাদের নৌবাহিনীকে আরও শক্তিশালী করার জন্য ইতোমধ্যে আমরা ২৭টি যুদ্ধজাহাজ সংযোজন করেছি। ২০১৭ সালে নৌবহরে দুটি অত্যাধুনিক সাবমেরিন সংযোজন করেছি। ফলে বাংলাদেশ নৌবাহিনীকে আমরা সম্পূর্ণ ত্রিমাত্রিক বাহিনীতে রূপান্তর সক্ষম হয়েছি। এখন লক্ষ্য হলো নিজস্ব শিপইয়ার্ডে আমরা আমাদের যুদ্ধজাহাজও তৈরি করবো এবং যার কাজ ইতোমধ্যে কিছু কিছু শুরুও করেছি।

আজ ৩০ ডিসেম্বর বুধবার সকালে ভার্চুয়ালি নৌবাহিনীর মিডশিপম্যান ২০১৮ আলফা ও ডিইও ২০২০ ব্রাভো ব্যাচের শীতকালীন রাষ্ট্রপতি কুচকাওয়াজ-২০২০ অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।

এরপর, এই কোর্সে সেরা পারদর্শিতার জন্য দুজন চৌকশ কর্মকর্তাকে স্বর্ণপদক এবং সব বিষয়ে শ্রেষ্ঠত্ব অর্জনকারীর হাতে সোর্ড অব অনার প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে তুলে দেন নৌ বাহিনী প্রধান। এবং সামরিক রীতিতে শপথ ও কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় সমুদ্র সীমা অর্জনের বিষয়টিকে অর্থনৈতিকভাবে কাজে লাগাতে সরকার উদ্যোগ নিচ্ছে বলে জানান শেখ হাসিনা।

এসময় তিনি বলেন, সমুদ্রসীমায় আমাদের যে অধিকার আছে, সেটা নিয়ে তথ্য-উপাত্ত সংগ্রহ করি, আন্তর্জাতিক আদালতে মামলা করে আমাদের দুটি প্রতিবেশী দেশ ভারত ও মিয়ানমার, তাদের বিরুদ্ধে মামলা করলেও বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক বজায় রেখে মামলা করেছিলাম এবং বিজয় অর্জন করি। বিশাল সমুদ্রসীমা আমরা অর্জন করতে সক্ষম হই। সেই সাথে সাথে আমাদের নৌবাহিনীকে আরও শক্তিশালী করার জন্য ইতোমধ্যে আমরা ২৭টি যুদ্ধজাহাজ সংযোজন করেছি। ২০১৭ সালে নৌবহরে দুটি অত্যাধুনিক সাবমেরিন সংযোজন করেছি। ফলে বাংলাদেশ নৌবাহিনীকে আমরা সম্পূর্ণ ত্রিমাত্রিক বাহিনীতে রূপান্তর সক্ষম হয়েছি।

তিনি আরও বলেন, নৌবাহিনীতে আমরা এভিয়েশন সিস্টেম থেকে শুরু করে সবকিছুই করে দিয়েছি। পাশাপাশি প্রশিক্ষণকে উন্নত করার জন্য বঙ্গবন্ধু কমপ্লেক্স নির্মাণ করে দিই। আর নৌবাহিনীর সদস্যদের আবাসন সমস্যা সমাধান করার জন্য ফ্ল্যাটও নির্মাণ করে দিয়েছি। এখন লক্ষ্য হলো নিজস্ব শিপইয়ার্ডে আমরা আমাদের যুদ্ধজাহাজও তৈরি করবো এবং যার কাজ ইতোমধ্যে কিছু কিছু শুরুও করেছি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমাদের দেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব রক্ষায় আমাদের সব ধরনের উদ্যোগ যেন থাকে এবং প্রশিক্ষণ থাকে, সেইভাবে আমরা আমাদের প্রতিটি বাহিনীকে আমরা গড়ে তুলছি।আমাদের লক্ষ্য এই স্বাধীন দেশ সবসময় বিশ্ব দরবারে মাথা উঁচু করে চলবে এবং আমরা আমাদের স্বাধীনতা সার্বভৌমত্ব রক্ষায় সবরকম প্রস্তুতি নেব।

(Visited 10 times, 1 visits today)