মেজর সিনহা হত্যা মামলা: ১৫ জনের বিরুদ্ধে চার্জসীট দাখিল

জাহাঙ্গির শামস, কক্সবাজার প্রতিনিধি : ১৫ জনকে অভিযুক্ত করে আলোচিত অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মো. রাশেদ খান হত্যা মামলার চূড়ান্ত প্রতিবেদন (চার্জসীট) দেয়া হয়েছে। আজ রোববার (১৩ ডিসেম্বর) সকাল ১০টার দিকে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা  র‌্যাব ১৫ এর সহকারী পুলিশ সুপার খায়রুল ইসলাম সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত -৪ এর বিচারক তামান্না ফারাহরর আদালতে চূড়ান্ত প্রতিবেদন দাখিল করেন।

চূড়ান্ত প্রতিবেদন দাখিল শেষে তদন্তকারী কর্মকর্তা খায়রুল ইসলাম সাংবাদিকদের জানান, দীর্ঘ  মামলা রুজুর চার মাস আট দিনের মাথায় চূড়ান্ত প্রতিবেদন করা হলো। এই চূড়ান্ত প্রতিবেদনে তদন্ত সাপেক্ষে ১৫ জনকে অভিযুুুুক্ত করে  চূড়ান্ত প্রতিবেদন দাখিল করা হলো।

তদন্তে প্রতিবেদনে, ওসি প্রদীপের পরিকল্পনায় অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা হত্যা সংঘটিত হয়েছে বলে উল্লেক করা হয়েছে। মূলত ওসি প্রদীপের কিছু ‘অসঙ্গতিমূলক’ কর্মকান্ডের চাঞ্চল্যকর তথ্য সিনহা জেনে গিয়েছিলো। সে কারণে সিনহাকে হত্যার সিদ্ধান্ত নেয় ওসি প্রদীপ। আর ওসি প্রদীপের আদেশ মতে সিনহাকে গুলি করে হত্যা করে পরিদশর্ক লিয়াকত।

গত ৩১ জুলাই রাতে টেকনাফের শামলাপুর চেকপোস্টে পুলিশের গুলিতে নিহত হন অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মো. রাশেদ খান। এরপর ৫ আগস্ট এ ঘটনায় ৯ জনের বিরুদ্ধে কক্সবাজার আদালতে মামলা করেন সিনহার বোন শারমিন শাহরিয়ার ফেরদৌস। র‌্যাবকে মামলাটির তদন্তভার দেয়া হয়। এ মামলায় এখন পর্যন্ত ১৪ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাদের মধ্যে ওসি প্রদীপ কুমার দাশ, পরিদর্শক লিয়াক আলীসহ আট পুলিশ সদস্য এবং এপিবিএন এর তিন সদস্য ও স্থানীয় তিন ব্যক্তি।

তাদের মধ্যে ওসি প্রদীপ কুমার দাশ এবং তার প্রধান সহযোগী রুবেল শর্মা ছাড়া প্রধান অভিযুক্ত পরিদর্শক লিয়াকত আলীসহ ১২ জন আসামি আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।

র‌্যাব সূত্র জানায়, তদন্তের দায়িত্ব পাওয়ার পর অত্যন্ত আন্তরিকতা ও সতর্কতার সাথে তদন্ত করা হয়েছে। এই তদন্ত কার্যক্রমে মামলার আসামীসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ও ব্যক্তি বক্তব্য নেয়া হয়েছে। সব তথ্য যাচাই-বাছাই করে চূড়ান্ত প্রতিবেদন তৈরি করা হয়েছে।

(Visited 14 times, 1 visits today)